চিকিৎসা নিয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৭৯ হাজার ৭৬৬ জন ডেঙ্গু রোগী     বিএসএমএমইউতে চালু হচ্ছে ৫ ডিজিটের হেলপ লাইন     আওয়ামী লীগ সম্পাদকমন্ডলীর সভা আগামীকাল     নওগাঁয় গত অর্থ বছরে ৪৬০ কোটি ৪৮ লক্ষ ৫১ হাজার টাকা ঋণ বিতরণ     নিউজিল্যান্ডের সঙ্গে বাণিজ্য ব্যবধান হ্রাসের আহ্বান জানালেন মোমেন     প্রশিক্ষণ সফর শেষে নৌবাহিনীর যুদ্ধ জাহাজ সমুদ্র অভিযানের ভারতের বিশাখাপত্তম বন্দর ত্যাগ     একনেকে ৮ প্রকল্প অনুমোদন     ঢাকা-ময়মনসিংহ রুটে ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক    

ঝালকাঠিতে বাবা হত্যায় ছেলের মৃত্যুদণ্ড

  আগস্ট ১৯, ২০১৯     ২৫     ৭:২৯ অপরাহ্ণ     আইন-আদালত
--

উত্তরণবার্তা প্রতিবেদক : ঝালকাঠির কাঠালিয়ায় বাবাকে হত্যার দায়ে ছেলে আলতাফ খন্দোকার (৩৫) নামের এক যুবককে মৃত্যুদণ্ডাদেশ দিয়েছেন আদালত। আজ সোমবার দুপুরে ঝালকাঠির অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ শেখ মো. তোফায়েল হাসান এ আদেশ দেন। একই সঙ্গে তাঁকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন আদালত।

আলতাফ কাঠালিয়া উপজেলার চেঁচরীরামপুর গ্রামের বাসিন্দা। রায় ঘোষণার সময় তিনি পলাতক ছিলেন।

মামলার নথি ও আদালত সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, পেশায় রিকশাচালক আলতাফ তাঁর বাবা বারেক খন্দোকারকে জমিজমা লিখে দিতে প্রায়ই চাপ দিতেন। এ নিয়ে বাবা-ছেলের মধ্যে ঝগড়া লেগে থাকত। ২০০৭ সালের ১০ এপ্রিল সন্ধ্যায় ৫ ভাই-বোনের মধ্যে সম্পত্তি ভাগ করে দেওয়ার জন্য চাপ দেন ছেলে আলতাফ। এ নিয়ে ঝগড়ার একপর্যায়ে আলতাফ তাঁর বাবার মাথায় লাঠি দিয়ে আঘাত করেন। তাঁকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ১৩ এপ্রিল মারা যান বারেক খন্দোকার।

এ ঘটনায় ওই রাতেই বারেক খন্দোকারের আরেক ছেলে মঞ্জু খন্দোকার বাদী হয়ে কাঠালিয়া থানায় আলতাফের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা করেন। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা কাঠালিয়া থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মো. শহিদুল ইসলাম একই বছরের ৩০ মে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন। আদালত ২০০৯ সালের ২৬ ফেব্রুয়ারি আলতাফের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেন।

রাষ্ট্রপক্ষে মামলা পরিচালনা করেন অতিরিক্ত সরকারি কৌঁসুলি এম আলম খান ও আসামিপক্ষে রাষ্ট্র নিযুক্ত আইনজীবী ছিলেন মঞ্জুর হোসেন।

উত্তরণবার্তা/দীন



রক্তাল্পতা দূর করবে যে সবজি

  সেপ্টেম্বর ১৭, ২০১৯

রাজশাহীতে ৬ মাসের শিশুর পেটে শিশু!

  সেপ্টেম্বর ১৭, ২০১৯     ২১৯

একনেকে ৮ প্রকল্প অনুমোদন

  সেপ্টেম্বর ১৭, ২০১৯     ২০২

পুরনো খবর