সপ্তাহের শেষে বৃষ্টিপাত বাড়তে পারে     নরেন দাসকে আমরা হারিয়ে যেতে দিবো না : আইনমন্ত্রী     সৌদি সীমান্তে মার্কিন গোয়েন্দা ড্রোন ভূপাতিত করল হুতিরা     নানা আয়োজনে বান্দরবানে আষাঢ়ী পূর্ণিমা উদযাপন     করোনাকালে রেমিট্যান্স ও রিজার্ভে রেকর্ড     করোনা আক্রান্ত এমপি সালমা চৌধুরীকে আনা হলো ঢাকায়     আফগান কারাগারে আইএসের হামলা অব্যাহত, নিহত ২৪     টাঙ্গাইলে বন্যার পানিতে ডুবে ভাইবোনের মৃত্যু    

স্বাধীনতাবিরোধী শক্তি বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করেছে : গণপূর্ত মন্ত্রী

  আগস্ট ২৮, ২০১৯     ১০৭     ৭:১৭ অপরাহ্ণ     জাতীয় সংবাদ
--

উত্তরণবার্তা প্রতিবেদক : গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম বলেছেন, স্বাধীনতাবিরোধী শক্তি বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করেছে আর অগণতান্ত্রিক সরকার তাদের পুনর্বাসন করেছে।
বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানকে বঙ্গবন্ধু হত্যার মদতদাতা উল্লেখ করে তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধুর হত্যাকান্ডের বিচার বন্ধ করতে তিনি সংবিধানের পঞ্চম সংশোধনীর মাধ্যমে কুখ্যাত ইনডেমনিটি অধ্যাদেশকে আইনে পরিণত করেছিলেন।
শ ম রেজাউল করিম বুধবার রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (রাজউক)’র অডিটোরিয়ামে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৪তম শাহাদত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে রাজউকের উদ্যোগে আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন।
রাজউকের চেয়ারম্যান ড. সুলতান আহমেদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. শহীদুল্লাহ খন্দকার।
এতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন রাজউকের সদস্য (পরিকল্পনা) সাঈদ নূর আলম এবং মুখ্য আলোচক হিসেবে বক্তব্য রাখেন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মীজানুর রহমান। শ ম রেজাউল করিম বলেন, পঁচাত্তরের ১৫ আগস্টের হত্যাকান্ড শুধু বঙ্গবন্ধুকে হত্যার মধ্যেই সীমাবদ্ধ নয়। ৩ নভেম্বরের জেলের মধ্যে জাতীয় চার নেতাকেও হত্যা করা হয়।
তিনি বলেন, তারপরও তারা ২০০৪ সালের ২১শে আগস্ট আওয়ামী লীগকে নেতৃত্ব শূন্য করতে বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনাকে হত্যার উদ্দেশে আওয়ামী লীগের জনসভায় গ্রেনেড হামলা চালিয়েছিল।
শ ম রেজাউল করিম বলেন, বিএনপি নেত্রী বেগম খালেদা জিয়া এতিমের টাকা আত্মসাতের মামলায় সাজাপ্রাপ্ত হয়ে জেলে রয়েছেন। ২১শে আগস্টের হামলা ও দুর্নীতির দায়ে সাজাপ্রাপ্ত হয়ে তার পুত্র তারেক রহমান বিদেশে পালিয়ে রয়েছেন।
তিনি বলেন, কিন্তু বঙ্গবন্ধুর কন্যা শেখ হাসিনা সকল দেশী-বিদেশী চাপ, ঝুঁকি ও ভয় উপেক্ষা করে মানবতাবিরোধী যুদ্ধাপরাধীদের অপরাধের বিচার এবং বিচারের রায় কার্যকর করে বাঙালি জাতিকে ১৯৭১ সালের কলঙ্কের দায় থেকে মুক্ত করেছেন।
অনুষ্ঠান শেষে রাজউক ভবনে আয়োজিত বঙ্গবন্ধুর উপর চিত্রকর্ম প্রদর্শনীতে স্থান পাওয়া বিভিন্ন চিত্রকর্মের শিল্পীদের মধ্য থেকে নির্বাচিত ৫ জনকে পুরস্কার দেয়া হয়।
পরে বঙ্গবন্ধুসহ ১৫ আগস্ট নিহত সকল শহীদের আত্মার মাগফিরাত কামনা করে দোয়া ও মিলাদ মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়।

উত্তরণবার্তা/দীন



পুরনো খবর