কলকাতা থেকে ফিরলেন আটকে পড়া ৪২ বাংলাদেশি     জুন পর্যন্ত বিদ্যুৎ বিলের বিলম্ব মাশুল মওকুফ     বড় প্রকল্পের কাজে গতি আনার নির্দেশ সেতুমন্ত্রীর     লিবিয়ায় রাশিয়ার যুদ্ধবিমান মোতায়েন, উদ্বেগ যুক্তরাজ্যের     একাদশে ভর্তি কার্যক্রম এখনই নয়     করোনা শনাক্ত করতে রাজধানীতে আরও দুটি ল্যাব চালু     খেটে খাওয়া মানুষের কথা ভাবে না বিএনপি : তথ্যমন্ত্রী     স্বাস্থ্যবিধি মেনে লঞ্চে যাত্রীদের চলাচলে সর্বাত্মক চেষ্টা করতে হবে : নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী    

দুইদিনে বাড়তে পারে বৃষ্টিপাত

  সেপ্টেম্বর ০৭, ২০১৯     ১৬২     ২২:৪৬     জাতীয় সংবাদ
--

উত্তরণবার্তা ডেস্ক : কয়েকদিন ধরে সাগরে অবস্থান করা লঘুচাপটি বর্তমানে ভারতের উড়িষ্যা স্থলভাগের উপর অবস্থান করছে। লঘুচাপটির নিম্নচাপে রূপ নেয়ার সম্ভাবনা নেই। এর প্রভাবে রবি ও সোমবার বাংলাদেশে বৃষ্টিপাতের পরিমাণ শনিবারের (৭ সেপ্টেম্বর) চেয়ে বাড়তে পারে। এক থেকে দুদিন বৃষ্টির পরিমাণ বাড়ার পর তা কমে আসতে পারে। বৃষ্টি কম অবস্থায় পরবর্তী পাঁচদিন বিরাজ করতে পারে।
শনিবার (৭ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদফতর ও আবহাওয়াবিদরা এ তথ্য জানিয়েছেন।
অন্যদিকে কয়েক দিন ধরে চলা চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মোংলা ও পায়রা সমুদ্রবন্দরকে তিন নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেত বহাল রেখেছে আবহাওয়া অফিস। উত্তর বঙ্গোপসাগরে অবস্থানরত মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারকে পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত উপকূলের কাছাকাছি থেকে সাবধানে চলাচল করতে বলা হয়েছে।
শনিবার সন্ধ্যা ৬টা পরবর্তী ৪৮ ঘণ্টার পূর্বাভাসে বলা হয়, দেশে বৃষ্টিপাতের প্রবণতা বাড়তে পারে। পরবর্তী পাঁচদিন আবহাওয়ার উল্লেখযোগ্য কোনো পরিবর্তন হবে না বলেও জানানো হয়েছে।
এ বিষয়ে আবহাওয়াবিদ বজলুর রশিদ জাগো নিউজকে বলেন, ‘যে লঘুচাপটি রয়েছে সাগরে সেটি উড়িষ্যার স্থলভাগে উঠে গেছে। বৃষ্টি দু-একদিন বেড়ে আবার কমে যাবে। আগামীকাল ও পরশু বৃষ্টি হবে। আজ যে পরিমাণ বৃষ্টি হয়েছে, তারচেয়ে বাড়বে।’
‘দুই থেকে তিনদিন পর থেকে বৃষ্টি কমতে থাকবে। পরে কমে যাওয়া অবস্থাই বিরাজ থাকবে’, যোগ করেন এই আবহাওয়াবিদ।
রোববার দেশে বৃষ্টিপাতের বিষয়ে আবহাওয়ার বুলেটিনে বলা হয়েছে, মৌসুমি বায়ু বাংলাদেশের ওপর মোটামুটি সক্রিয় এবং উত্তর বঙ্গোপসাগরে প্রবল অবস্থায় রয়েছে। এর প্রভাবে খুলনা, বরিশাল, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের অনেক জায়গায় এবং রংপুর, রাজশাহী, ঢাকা ও ময়মনসিংহ বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় অস্থায়ী দমকা হাওয়াসহ হালকা থেকে মাঝারি ধরনের বৃষ্টি অথবা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেই সঙ্গে দেশের কোথাও কোথাও মাঝারি ধরনের ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টি হতে পারে।
রোববার সারাদেশে দিনের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে এবং রাতের তাপমাত্রা সামান্য কমতে পারে বলেও আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে।
পূর্বাভাসে আরও বলা হয়, শনিবার দেশে সর্বোচ্চ বৃষ্টিপাত হয়েছে কক্সবাজারের ৮৬ মিলিমিটার। সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল সিলেটে ৩৫ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস এবং সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল টেকনাফে ২৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস।
ঢাকায় ১ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত হয়েছে। সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩২ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস এবং সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ২৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস। রোববার ঢাকায় সূর্য উঠবে ভোর ৫টা ৪২ মিনিটে এবং ডুববে সন্ধ্যা ৬টা ১০ মিনিটে।
উত্তরণবার্তা/অআ



পুরনো খবর