মানুষকে সুরক্ষিত করতে প্রাণপণে চেষ্টা করে যাচ্ছি : প্রধানমন্ত্রী     মানুষকে বাঁচাতে হবে, তাই কিছু ক্ষেত্র উন্মুক্ত করছি     করোনায় ২৪ ঘণ্টায় প্রাণ হারালেন ৩৫ জন     শনিবার পর্যন্ত বিমানের সব ফ্লাইট বাতিল     বাংলাদেশে আসছেন নতুন ভারতীয় হাইকমিশনার     গেলো পাঁচ দিনের প্রতিদিন আক্রান্ত লাখ ছাড়িয়েছে     বিশ্ব সম্প্রদায়ের প্রতি প্রধানমন্ত্রীর তিন দফা প্রস্তাব     ঢাকায় আসছে চীনা করোনা মেডিক্যাল টিম    

দুর্নীতিবাজদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা চায় ১৪ দল

  সেপ্টেম্বর ২৪, ২০১৯     ১৬৩     ১৪:৩৫     রাজনীতি
--

উত্তরণবার্তা প্রতিবেদক : শুধু ক্যাসিনোর বিরুদ্ধে অভিযান সীমাবদ্ধ না রেখে দুর্নীতিবাজ ও অপকর্মের সঙ্গে জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার উপর জোর দিয়েছেন ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের নেতৃত্বাধীন জোট ১৪ দলের শরিকেরা।

একই সঙ্গে এই অভিযানে সরকারের নির্মোহ অবস্থান যেন অব্যাহত থাকে সেদিকে লক্ষ্য রাখারও পরামর্শ দিয়েছেন তারা। এছাড়া বিভিন্ন অপকর্মের বিরুদ্ধে সরকারের চলমান অভিযানকে ইতিবাচক হিসেবে দেখছেন ১৪ দলের শরিকেরা।

তারা বলছেন, সব অপকর্মের বিরুদ্ধে এই পদক্ষেপ ভবিষ্যতের জন্য শিক্ষনীয় হয়ে থাকবে। এই অভিযান পরিচালনা এবং জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা রাজনৈতিক বিবেচনায় না নিয়ে নির্মোহভাবে নিতে হবে।

১৪ দলের শরিক বাংলাদেশ জাসদের সভাপতি শরিফ নুরুল আম্বিয়া বলেন, রাজনীতিতে যে পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে এই অপকর্ম তারই বহিঃপ্রকাশ। এ পরিস্থিতি থেকে বেরিয়ে আসার জন্য এবং ইমেজ ভালো করার জন্য অপকর্মের বিরুদ্ধে সরকার এই পদক্ষেপ নিয়েছে।

‘সাধারণ মানুষও এই পদক্ষেপকে সমর্থন করছে। এর একটা ইতিবাচক ফল আসবে। তবে কতটুকু আসবে সেটার জন্য আরও অপেক্ষা করতে হবে।’

শরিক দলগুলোর নেতাদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, এরই মধ্যে বিভিন্ন ক্লাবে ক্যাসিনো বা জুয়াসহ নানা অপরাধের বিরুদ্ধে অভিযান শুরু হয়েছে। তবে তা শুধু ক্যাসিনোতে সীমাবদ্ধ না রেখে যারা দুর্নীতিবাজ, লুটপাটকারী, টেন্ডার নিয়ন্ত্রণ, চাঁদাবাজির সঙ্গে যুক্ত তাদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নিতে হবে।

একই সঙ্গে এসব কর্মকাণ্ডে যারা এতদিন ধরে আশ্রয়-প্রশ্রয় দিয়েছেন ও তৈরি করেছেন তাদের বিরুদ্ধেও কঠোর হতে হবে সরকারকে। তবেই একটি সুন্দর সমাজ গঠন সম্ভব।

এ বিষয়ে ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক ফজলে হোসেন বাদশা বলেন, বিষয়টা খুবই ইতিবচাক। দীর্ঘদিন ধরে ক্যাসিনো, টেন্ডারবাজি, চাঁদাবাজিসহ অপকর্মগুলো চলে আসছে। দেরিতে হলেও এর বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নেয়ায় হয়েছে। রাজনৈতিক বিবেচনায় না নিয়ে অপকর্মের সঙ্গে জড়িতদের বিরুদ্ধে নির্মোহভাবে পদক্ষেপ নিতে হবে। এখন পর্যন্ত তা সেভাবেই চলছে। এই অবস্থানটা অব্যাহত রাখতে হবে।

‘তবে যারা এর সঙ্গে জড়িত নয়, তাদের নাম জড়িয়ে যেন মূল উদ্দেশ্যকে অন্যদিকে ঘুরিয়ে দেয়ার চেষ্টা না হয় সেদিকেও লক্ষ্য রাখতে হবে।’

জোট শরিক সাম্যবাদী দলের সাধারণ সম্পাদক দিলীপ বড়ুয়া বলেন, অভিযানটা শুধু ক্যাসিনোর মধ্যে সীমাবদ্ধ না রেখে এসব অপকর্মের যারা প্রশ্রয়দাতা তাদের বিরুদ্ধেও চালাতে হবে। সেটা করতে পারলে সরকারের ইমেজ আরও বাড়বে এবং প্রধানমন্ত্রীর হাত আরও শক্তিশালী হবে।

একই কথা বলছেন ১৪ দলের আরেক শরিক জাসদের সাধারণ সম্পাদক শিরীন আখতারও।

তার মতে, এটা সবার জন্য শিক্ষনীয় হয়ে থাকবে। দেশের জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা অনেক ভালো কাজ করছেন, তিনি প্রশংসিতও হচ্ছেন। কিন্তু কিছু লোকের অপকর্ম সেই অর্জনকে ম্লান করে দিচ্ছে। এসব অপকর্মের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হলে ভবিষ্যতে কেউ এদিকে আগাতে আর সাহস পাবে না।

উত্তরণবার্তা/এআর



৪ জুন: হাসতে নেই মানা

  জুন ০৪, ২০২০     ৯১

পুরনো খবর