মুক্তিযুদ্ধের সময় ভারত পাশে ছিল ভুলিনি: কলকাতায় প্রধানমন্ত্রী     টাইগারদের হতাশার দিনে ৬৮ রানের লিড ভারতের     ট্রুডোকে অভিনন্দন শেখ হাসিনার     শূন্য রানে ফিরলেন বাংলাদেশের ৩ ব্যাটসম্যান     ঘণ্টা বাজিয়ে কলকাতা টেস্ট উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী     ‘গোলাপি’ টেস্টের উদ্বোধনীতে যা যা থাকছে     ইডেনে আজ গোলাপি টেস্টে ঘণ্টা বাজাবেন প্রধানমন্ত্রী     খেলার মাঠে মুখোমুখি হবেন মমতা-হাসিনা    

নার্সিং সমস্যা সমাধানের উপায় খোঁজার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর

  অক্টোবর ২৪, ২০১৯     ২৭     ০০:২১     আরও
--

উত্তরণবার্তা প্রতিবেদক : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নার্সিং খাতে বিরাজমান সমস্যা সমাধানের উপায় খুঁজে বের করতে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়কে দায়িত্ব দিয়েছেন। বুধবার দুপুরে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী জাহিদ মালেক ও স্বাস্থ্য সচিব (স্বাস্থ্য শিক্ষা) শেখ ইউসুফ হারুন নার্সিং সেক্টরের বিরাজমান সমস্যা অবহিত করতে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে তার কার্যালয়ে সাক্ষাৎ করতে গেলে তিনি এ নির্দেশনা দেন।

সাক্ষাতকালে স্বাস্থ্যমন্ত্রী ও স্বাস্থ্য সচিব প্রধানমন্ত্রীকে জানান, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের রুল অব বিজনেস অনুসরণ না করে এবং বাংলাদেশ নার্সিং ও মিডওয়াইফারি কাউন্সিল আইন ভঙ্গ করে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের কারিগরি বোর্ড পেশেন্টকে টেকনোলজিস্ট ডিপ্লোমা ইন নার্সিং সায়েন্স অ্যান্ড মিডওয়াইফারি কোর্স পরিচালনা করছে। তারা জানান, নার্সিংয়ের বিভিন্ন কোর্স স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের অধীনে পরিচালিত হয়। এক্ষেত্রে নার্সদের ন্যূনতম শিক্ষাগত যোগ্যতা এইচএসসি পাস। এর বিভিন্ন কোর্স, কারিকুলাম ও নীতিমালা ভিন্ন। ব্যবহারিক শিক্ষার জন্য কারিগরি বোর্ডের মাধ্যমে পরিচালিত নার্সিং কোর্সের শিক্ষার্থীদের হাতে-কলমে শিক্ষার জন্য কোনো রোগী ও হাসপাতাল নেই। তদুপরি এখন কারিগরি বোর্ড থেকে পাস করা নার্সিং অ্যান্ড মিডওয়াইফারি কাউন্সিল থেকে রেজিস্ট্রেশন চাইছে। এ নিয়ে আদালতে স্বাস্থ্য শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের পাল্টাপাল্টি মামলা চলছে। জানা গেছে, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মনোযোগ দিয়ে সমস্যার কথা শোনেন এবং স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় ও শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে পাস করা শিক্ষার্থীদের সমস্যা সমাধানের জন্য উভয়ের জন্য সম্মানজনক সমাধান খুঁজে বের করতে বলেন। এ সময় জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের সাথে স্বাস্থ্য ও শিক্ষা মন্ত্রণালয়কে বসে সমস্যা সমাধানের উপায় খুঁজে বের করার নির্দেশনা দেন তিনি।

জানা গেছে, প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা অনুযায়ী স্বাস্থ্যমন্ত্রী ও শিক্ষামন্ত্রী শিগগিরই জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বশীল কর্মকর্তাদের সঙ্গে বসে এর গ্রহণযোগ্য সমাধান খুঁজে বের করবেন। জানা গেছে, নার্সিং অ্যান্ড মিডওয়াইফারি বিভিন্ন কোর্স স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের এক্তিয়ারভুক্ত হলেও শিক্ষা মন্ত্রণালয় কারিগরি বোর্ডের মাধ্যমে ৯৪ টি নার্সিং শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে কয়েক বছর যাবত শিক্ষার্থী ভর্তি করছে। ইতিমধ্যেই সেসব প্রতিষ্ঠান থেকে চার হাজারেরও বেশি নার্স পাস করে বের হয়েছে। আরো প্রায় ৬ হাজার শিক্ষার্থী পড়াশোনা করছে কিংবা ভর্তির জন্য অপেক্ষা করছে। স্বাস্থ্যমন্ত্রী ও স্বাস্থ্য সচিবের সঙ্গে আলাপকালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, ইতিমধ্যেই কারিগরি বোর্ডের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান থেকে যে সকল শিক্ষার্থী নার্সিং কোর্স পাস করে বের হয়েছে তাদেরকে একেবারে অস্বীকার করা যাবে না। তারা একটি মন্ত্রণালয়ের অধীনে পড়াশোনা করে পাস করেছে এবং সার্টিফিকেট লাভ করেছে। এখন তাদেরকে কীভাবে স্বীকৃতি দেয়া যায়, কীভাবে তাদেরকে কাজে লাগানো যায় সে উপায় বের করতে হবে।

এদিকে নার্সিং সমস্যা সমাধানের নির্দেশ দেয়ায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন বাংলাদেশ নার্সেস এসোসিয়েশন ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল শাখার সভাপতি মোহাম্মদ কামাল হোসেন পাটওয়ারী ও সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ আসাদুজ্জামান জুয়েল ও স্বাধীনতা নার্সেস পরিষদের মহাসচিব মো. ইকবাল হোসেন সবুজ। বুধবার এক যৌথ প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে তারা এ ধন্যবাদ জানান।

প্রসঙ্গত, মঙ্গলবার বাংলাদেশ ইন্টার্ন নার্সেস অ্যাসোসিয়েশন, লাইসেন্স পরীক্ষা বাস্তবায়ন সংগ্রাম পরিষদ ও বাংলাদেশ ডিপ্লোমা স্টুডেন্ট অ্যাসোসিয়েশন কারিগরি বোর্ডের পেশেন্টকে টেকনোলজিস্টদের ডিপ্লোমা ইন নার্সিং সায়েন্স অ্যান্ড মিডওয়াইফারি কোর্সে নিবন্ধনের দাবির বিরোধিতা করে আন্দোলনে নামে। তারা রাজধানীর বিজয়নগরে বাংলাদেশ নার্সিং অ্যান্ড মিডওয়াইফারি কাউন্সিল কার্যালয় অবরোধ করে এবং এক পর্যায়ে স্বাস্থ্য সচিবকে অবরুদ্ধ করেন। পরে স্বাস্থ্যমন্ত্রী তাদের ডেকে নিয়ে এ সমস্যা সমাধানে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনায় বসবেন বলে প্রতিশ্রুতি দিলে নার্সরা আপাতত কর্মসূচি স্থগিত করেন।

নার্স নেতারা জানান, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের রুলস অব বিজনেস অ্যান্ড অনুসরণ না করে এবং বাংলাদেশ নার্সিং ও মিডওয়াইফারি কাউন্সিল আইন ভঙ্গ করে ভিন্ন কোর্স, ভিন্ন নাম, ভিন্ন শিক্ষাগত যোগ্যতা, ভিন্ন কারিকুলাম, ভিন্ন বিভাগ, অভিন্ন নীতিমালা শর্ত, কারিগরি বোর্ডের পেশেন্ট কেয়ার টেকনোলজিস্টদের ডিপ্লোমা ইন নার্সিং সায়েন্স অ্যান্ড মিডওয়াইফারি কোর্সে নিবন্ধনের দাবির মাধ্যমে সৃষ্ট জটিলতার কারণে আট হাজারের বেশি শিক্ষার্থী কম্প্রিহেনসিভ বা লাইসেন্স পরীক্ষা গত এক বছর ধরে দিতে পারছেন না। এতে নানা জটিলতা সৃষ্টি হয়েছে।

উত্তরণবার্তা/এআর



ফেন্সিডিলসহ আটক ১

  নভেম্বর ২২, ২০১৯

পুরনো খবর