করোনা সম্পর্কে যেসব তথ্য এখনো অজানা     সর্বশেষ করোনা পরিস্থিতি, গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন কোনো আক্রান্ত নেই     পরিস্থিতি আরও খারাপ হবে : বরিস জনসন     নিউজিল্যান্ডে করোনায় প্রথম মৃত্যু     ঢাকার পথে মেডিক্যাল সরঞ্জামবাহী চীনা বিমান     বিশ্বে করোনায় মৃত্যুর সংখ্যা ৩০৮৮০, আক্রান্ত ৬৬৩৭৪০     টিভিতে শুরু হলো ষষ্ঠ থেকে নবম শ্রেণির ক্লাস     সরকারের অবহেলায় সংক্রমণ শীর্ষে যুক্তরাষ্ট্র    

মিরপুর থেকে অতিথি আসায় বাসাইলের ৩ পরিবারকে লকডাউন

  মার্চ ২৬, ২০২০     ১৮     ১৫:০৫     আরও
--

উত্তরণবার্তা প্রতিবেদক : টাঙ্গাইলের বাসাইলে সরকারি নির্দেশ অমান্য করে রাজধানীর মিরপুর থেকে অতিথি আসায় তিনটি পরিবারকে লকডাউন করেছেন উপজেলা প্রশাসন।

এসময় তাদের আশ্রয় দেয়া ব্যক্তিকে ৩০ হাজার টাকা জরিমানাও করা হয়।

আজ বৃহস্পতিবার (২৬ মার্চ) বেলা ১১দিকে বাসাইল উপজেলা সরকারী কমিশনার (ভূমি) মোহাম্মদ ফজলে এলাহী এই আদেশ দেন। লকডাউন করা ওই তিন পরিবারে মোট ১২ জন সদস্য রয়েছেন।

স্থানীয়দের বরাত দিয়ে বাসাইল উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) জানান, গত ৫ দিন আগে রাজধানীর মিরপুরের টোলারবাগে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে এক ব্যক্তি মারা যাবার পর ওই এলাকা লকডাউন করা হয়। এরপর সেখান থেকে এক ব্যক্তি তার স্ত্রী ও এক সন্তানকে নিয়ে পালিয়ে এসে বাসাইলের কাঞ্চনপুরে আশ্রয় নিয়েছে— স্থানীয়দের এমন অভিযোগের ভিক্তিতে আজ সেখানে অভিযান চালানো হয়। অভিযানে অভিযোগের সত্যতা পাওয়া যায়।

ঢাকা থেকে আসা পরিবারটি যে বাড়িতে আশ্রয় নিয়েছে, সেখানে আগে থেকে তিনটি পরিবার বাস করতেন। তাদের এই যৌথ পরিবারে ৯ সদস্য ছিলো। ঢাকা থেকে পরিবারটি এসে আশ্রয় নেয়ায় তাদের মোট ১২ জন সদস্য হয়।

যেহেতু ওই তিন সদস্য হোম কোয়ারেন্টাইনের নির্দেশ অমান্য করেছেন আর সেই বাড়ির সবাই ঢাকা থেকে আসা অতিথিদের সংস্পর্শে এসেছে। তাই করোনাভাইরাস যাতে সংক্রমণ না করতে পারে সেই নিরাপত্তার স্বার্থে পুরো বাড়িসহ তিন পরিবারকে প্রাথমিকভাবে আনঅফিসিয়ালি লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে।

পরবর্তীতে ইউএনও মহোদয় ঊর্ধ্বতন কর্তাদের সঙ্গে কথা বলে আনুষ্ঠানিক প্রক্রিয়ায় লকডাউন ঘোষণা করবেন। অভিযানে ঢাকা থেকে আসা পরিবারটির আশ্রয়দাতাকে ৩০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

পরে, লকডাউনে থাকা পরিবারের অর্থেই স্থানীয় বাজার থেকে লোক দিয়ে তাদের প্রয়োজনীয় খাদ্যদ্রব্যাদি ক্রয় করে হস্তান্তর করা হয়েছে। লকডাউনে থাকা সময়ে তারা বাড়ির বাহিরে যেতে পারবেন না বা তাদের বাড়িতে কেউ প্রবেশ করতে পারবেন না।

কোন পণ্য বা জরুরি ওষুধ সেবার প্রয়োজন হলে লোক দিয়ে তাদের কাছে সেই দ্রব্যাদি পৌঁছে দেয়ার জন্য স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যানকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

এসময় স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান, বাসাইল থানার দুই সহকারী উপ-পরিদর্শক, স্থানীয় অধিবাসীসহ স্থানীয় সংবাদকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

উত্তরণবার্তা/এআর



পুরনো খবর