করোনার কারণে ঢাকা ছেড়েছেন দেড় হাজার ভারতীয়     প্রধানমন্ত্রী দেশের ইতিহাসে বৃহত্তম ত্রাণ কার্যক্রম পরিচালনা করছেন : তথ্যমন্ত্রী     আন্তর্জাতিক জাতিসংঘ শান্তিরক্ষী দিবস আজ     নাটকীয়ভাবে ফ্রান্সে বেড়েছে আক্রান্তের সংখ্যা     ব্রাজিলে করোনায় দৈনিক আক্রান্তের রেকর্ড     বাড়ি বাড়ি প্রশ্নপত্র পাঠিয়ে প্রাথমিকের পরীক্ষার পরিকল্পনা     ‘বিশেষজ্ঞদের সঙ্গে আলোচনা করেই ছুটি না বাড়ানোর সিদ্ধান্ত হয়েছে’     করোনার সংক্রমণ বাড়ায় দক্ষিণ কোরিয়ায় আবারও কড়াকড়ি    

পঙ্গপালে আক্রান্ত দেশের জন্য বিশ্বব্যাংকের ঋণ

  মে ২২, ২০২০     ২৬     ১৫:৫৮     বিদেশ
--

উত্তরণবার্তা আন্তর্জাতিক ডেস্ক : পঙ্গপালের আক্রমণের শিকার দেশের জন্য  ঋণ ঘোষণা করেছে বিশ্বব্যাংক। প্রাথমিকভাবে আফ্রিকা ও মধ্যপ্রাচ্যে ৫০ কোটি ডলার ঋণ দেবে সংস্থাটি। প্রতি ডলার সমান ৮৬ টাকা ধরে বাংলাদেশি মুদ্রায় ৪ হাজার ৩শ কোটি টাকা। এই ঋণ খাদ্য সুরক্ষা সংরক্ষণ ও জীবিকা নির্বাহের জন্য ঘোষণা করা হয়েছে।

পঙ্গপাল আক্রান্ত দেশগুলোর জন্য এ জরুরি অর্থায়ন করে ক্ষয়ক্ষতি থেকে পুনরুদ্ধারে সহায়তা করবে। শুক্রবার সংস্থাটির প্রধান কার্যালয় ওয়াশিংটন থেকে পাঠানো এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বিশ্ব ব্যাংকের কার্যনির্বাহী পরিচালক বোর্ড থেকে এ ঋণ জরুরিভাবে অনুমোদন হয়েছে। মূলত দরিদ্র ও দুর্বল কৃষক, পোষা প্রাণী এবং গ্রামীণ পরিবারগুলিকে পঙ্গপালের উপদ্রব থেকে রক্ষা করতেই এমন উদ্যোগ।   
ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলোকে নগদ অর্থায়নসহ সামাজিক সুরক্ষা বাড়ানো, কৃষিক্ষেত্র এবং প্রাণিসম্পদ উৎপাদন ব্যবস্থা ও গ্রামীণ জীবিকা নির্বাহের মধ্যমেয়াদী পুনরুদ্ধারে বিনিয়োগ করা হবে এ ঋণ। 

কর্মসূচির প্রাথমিক পর্যায়ে জিবুতি, ইথিওপিয়া, কেনিয়া ও উগান্ডায় ১৬ কোটি ডলার অর্থায়নের প্যাকেজ রয়েছে।

বিশ্বব্যাংক প্রেসিডেন্ট ডেভিড মালপাস বলেন, অনেক দেশের জন্য একই সঙ্গে পঙ্গপাল ও কেভিড-১৯ এর সঙ্গে লড়াই কষ্টের। এসব দেশে দ্বৈত সংকট দেখা দিয়েছে। বিশ্বের কিছু দরিদ্র ও সবচেয়ে দুর্বল মানুষকে আরও বেশি ঝুঁকিতে ফেলেছে।
 
জিবুতি
জিবুতিতে ভবিষ্যতে পঙ্গপালের প্রাদুর্ভাবের বিরুদ্ধে লড়তে এখান থেকে ৬ মিলিয়ন ব্যবহার করা হবে।    প্রাতিষ্ঠানিক সক্ষমতা জোরদার করতে পাশাপাশি ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলিতে নগদ সহায়তা দেওয়া হবে।

ইথিওপিয়া
নজরদারি ও নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থার পরিমাণ বাড়ানো ছাড়াও ৩ মিলিয়ন মার্কিন ডলার আসন্ন ফসল মৌসুমে রোপণ কাজে ব্যবহার হবে। কৃষকদের ফসলের বীজ ও সার প্যাকেজ সরবরাহ করবে। জরুরি সহায়তা দেওয়া হবে ১ লাখ ১৩ হাজার পরিবারকে।

কেনিয়া
পঙ্গপাল ও জলাবদ্ধতায় ক্ষতিগ্রস্ত ফসল এবং পশুপাল সহায়তা দেওয়া হবে। উৎপাদন ব্যবস্থার জন্য লাখো পরিবার ও ২০ হাজার কৃষককে ৪৩ মিলিয়ন মার্কিন ডলার সহায়তা পাবে।

উগান্ডা
পঙ্গপাল নজরদারি ও নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থায় ৪৮ মিলিয়ন মার্কিন ডলার সহায়তা পাবে দেশটি। অস্থায়ী কর্মসংস্থান কর্মসূচি এবং পানি ও মাটি সংরক্ষণ কার্যক্রম, কৃষি-বনায়ন প্রযুক্তি কাজে ব্যবহার হবে। নানা কর্মসূচির মাধ্যমে জীবিকা রক্ষা ও পুনর্বাসনের জন্য অর্থায়ন করবে সংস্থাটি।

২০২০ সালের মে মাসের প্রথমদিকে আফ্রিকা, মধ্যপ্রাচ্য এবং দক্ষিণ এশিয়া জুড়ে ২৩টি দেশে পঙ্গপাল আক্রমণ করে। এসব দেশে পর্যায়ক্রমে স্বল্পসুদে ঋণের ঘোষণা দিল বিশ্বব্যাংক।

উত্তরণবার্তা/সাব্বির



পুরনো খবর