লঞ্চের ভাড়া বাড়ছে না এখনই     বহিষ্কারাদেশ চ্যালেঞ্জ করবেন মাহাথির     বাস চলবে ১ জুন থেকে, খালি রাখতে হবে অর্ধেক আসন     স্থায়ী নিয়োগ পেলেন ১৮ বিচারপতি     করোনা রোগীর রক্তের নমুনা নিয়ে পালাল বানর     বাঁধ প্রকল্পের পাশাপাশি বৃক্ষরোপণের কোন বিকল্প নেই : জাহিদ ফারুক     প্রধানমন্ত্রী বিশেষজ্ঞদের সঙ্গে আলোচনা করেই ছুটি না বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছেন : ওবায়দুল কাদের     ফেইসবুক লাইভে এসএসসির ফল জানাবেন শিক্ষামন্ত্রী    

১৫ হাজার বছর পুরোনো ৭০টি ম্যামথের ফসিল আবিষ্কার

  মে ২৩, ২০২০     ১৯৭     ২১:৫২     শিক্ষা
--

উত্তরণবার্তা তথ্যপ্রযুক্তি ডেস্ক : মেক্সিকোর বিজ্ঞানীরা সান্তা লুসিয়া শহরের নিউ ফিলিপ এঞ্জেলস ইন্টারন্যাশনাল এয়ারপোর্ট এলাকায় খনন কাজ করতে গিয়ে খুঁজে পেলেন ১৫ হাজার বছর পুরোনো ৭০টি ম্যামথের ফসিল! ম্যামথরা বর্তমানের হাতির মতো দেখতে হলেও সেগুলো ছিল আরো বড়।

খনন কাজে অংশ নেয়া প্রত্নতত্ত্ববিদরা বলছেন, এসব ম্যামথকে হয়তো ১৫ হাজার বছর আগে নিওলিথিক মানুষরা হত্যা করেছিল। গত বছর এই গবেষকরা জানিয়েছিলেন যে, এয়ারপোর্টের ১২ মাইল দূরে দুটি গর্ত খুঁজে পেয়েছেন তারা। বিজ্ঞানীদের ধারণা এসব গর্তে ফাঁদ তৈরি করেই হয়তো ম্যামথ শিকার করতো সে সময়ের মানুষ। ওই এলাকায় সে সময়ের ১৫ জন মানুষের মাথার খুলি, কয়েকটি কুকুর, উট, ঘোড়ার দেহাবশেষ সহ আরো কিছু প্রত্নতাত্ত্বিক নিদর্শণ পাওয়া গেছে।

গত বছর এখানে কলাম্বিয়ান ম্যামথের ফসিল পাওয়ার পর থেকে ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব অ্যানথ্রোপোলজি অ্যান্ড হিস্ট্রির কর্মীরাও কাজ করছেন। প্রথমে গবেষকরা ভেবেছিলেন হয়তো ১২টি ম্যামথের ফসিল পাওয়া যাবেৎ এলাকাটিতে। কিন্তু এখন ৭০টির মতো ম্যামথের ফসিল খুঁজে পেয়েছেন তারা।

গবেষকরা বলছেন খনন করার পর যেসব প্রাণীর দেহাবশেষ পাওয়া গেছে, সেগুলোর কোনো কোনোটি হয়তো ৩৫ হাজার বছর পুরোনো হতে পারে। এখানে পাওয়া কলাম্বিয়ান ম্যামথগুলো লোমশ ম্যামথের চেয়ে একটু ভিন্ন রকম ছিল। কলাম্বিয়ান ম্যামথের লোম কম ছিল, এগুলো ১৫ ফুট পর্যন্ত উঁচু হতো, ওজন হতো ২২ হাজার পাউন্ডের মতো। আর এদের শুঁড় ১৬ ফুটের মতো লম্বা হতো। এরা ৬৫ বছর পর্যন্ত বাঁচতো বলে জানান গবেষকরা।

কলাম্বিয়ান ম্যামথগুলো উত্তর আমেরিকায় যুক্তরাষ্ট্রের উত্তরাঞ্চল থেকে দক্ষিণ আমেরিকার কোস্টারিকা পর্যন্ত বসবাস করতো। নতুন একটি এয়ারপোর্ট তৈরির জন্য খনন করতে গিয়ে এই প্রাচীন ম্যামথ সহ প্রত্নতত্ত্বের খোঁজ পান গবেষকরা। মোট ৩১ জন প্রত্নতত্ত্ববিদ এখানে কাজ করছেন।

উত্তরণবার্তা/এআর
 



পুরনো খবর