প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যতদিন ক্ষমতায় থাকবে বাংলাদেশ ততদিন নিরাপদ থাকবে : পানিসম্পদ উপমন্ত্রী     এবার লাদাখে দল বেঁধে উড়ল যুদ্ধবিমান, মিলিটারি হেলিকপ্টার     হাতিয়ায় পূর্ণিমার জোয়ারের পানিতে থৈ থৈ     তদবির নয়, বদলি হবে নিয়মতান্ত্রিক উপায়ে : আইজিপি     যুক্তরাষ্ট্রের স্বাধীনতা ঘোষণা বার্ষিকীতে ট্রাম্পকে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শুভেচ্ছা     করোনায় সারাদেশে এক কোটি ৬৮ লাখ পরিবার পেয়েছে সরকারি ত্রাণ     করোনায় মৃত্যু ২ হাজার ছুঁই ছুঁই, আক্রান্ত ৩২৮৮     কমেছে যমুনা-বাঙ্গালী নদীর পানি    

দেশে আবারও শুরু হচ্ছে উইকিপিডিয়ার ছবি প্রতিযোগিতা

  জুন ০১, ২০২০     ৫৭     ১১:৩১     শিক্ষা
--

উত্তরণবার্তা তথ্য প্রযুক্তি ডেস্ক : দেশের সংরক্ষিত প্রাকৃতিক বনাঞ্চল ও এর জীববৈচিত্র্যের ছবি নিয়ে বাংলাদেশে চতুর্থবারের মতো শুরু হচ্ছে উইকিপিডিয়ার ছবি প্রতিযোগিতা ‘উইকি লাভস আর্থ ২০২০’।

আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতাটি এ বছর ৩২টি দেশে অনুষ্ঠিত হচ্ছে। মাসব্যাপী স্থায়ী প্রতিযোগিতাটি ১ জুন থেকে শুরু হয়ে চলবে ৩০ জুন পর্যন্ত। ২০১৭ সাল থেকে দেশে বাৎসরিক এ প্রতিযোগিতাটি আয়োজন করছে উইকিমিডিয়া বাংলাদেশ।

বাংলাদেশের প্রাকৃতিক সংরক্ষিত অঞ্চলের নির্দিষ্ট তালিকা থেকে যেকোনো সময় তোলা ছবি জমা দিয়ে প্রতিযোগিতায় অংশ নেয়া যাবে। প্রতিযোগিতায় একজন একাধিক ছবি জমা দিতে পারবেন। প্রতিযোগিতা শেষে প্রতিটি দেশ থেকে সেরা ১০টি ছবি আন্তর্জাতিক জুরিদের কাছে পাঠানো হবে এবং সব দেশের ছবি থেকে সেরা ১৫টি ছবি আন্তর্জাতিকভাবে বিজয়ী ঘোষণা করা হবে। আন্তর্জাতিকভাবে সেরা ১৫টি ছবির জন্য রয়েছে ৩০০০ হাজার ইউরো থেকে ২০০ ইউরো সমমূল্যের অ্যামাজন গিফট ভাউচার, সার্টিফিকেটসহ আরো অন্যান্য পুরস্কার। স্থানীয় পর্যায়েও বিজয়ীদের জন্য রয়েছে বিশেষ পুরস্কার।

যেহেতু প্রতিযোগিতাটি আন্তর্জাতিক তাই এটি বাংলাদেশের প্রাকৃতিক সৌন্দর্য ও জীববৈচিত্র্য বিশ্বের সামনে তুলে ধরার বড় একটি মঞ্চ। প্রতিযোগিতাটি সংরক্ষিত বনাঞ্চল সম্পর্কে সচেতনতা সৃষ্টি ছাড়াও দেশের পর্যটন খাতে বিদেশি পর্যটক আকৃষ্ট করতে ভূমিকা রাখবে। প্রতিযোগিতার মাধ্যমে এখন পর্যন্ত ৭ হাজার এমন মুক্ত ছবির একটি ডাটাবেজ তৈরি হয়েছে।

উল্লেখ্য, ২০১৭ সালে প্রথমবারের অংশগ্রহণে লাউয়াছড়া জাতীয় উদ্যানের একটি ছবি সারা বিশ্বের ৩৬টি দেশের এক লাখ ৩১ হাজার ছবির সঙ্গে প্রতিযোগিতা করে ১১তম স্থান দখল করেছিল। ছবিটি তুলেছিলেন পল্লব কবির। ২০১৮ সালে ৩২টি দেশের ৯০ হাজার ছবির সঙ্গে প্রতিযোগিতা করে আন্তর্জাতিক সেরা ১৫টি ছবির মধ্যে বাংলাদেশের আব্দুল মোমিনের তোলা সাতছড়ি জাতীয় উদ্যানের একটি ছবি ৩য় ও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব সাফারি পার্কে তাঁর তোলা বন বাটনের অপর একটি ছবি ৮ম এবং শাহেনশাহ বাপ্পির তোলা কাঠ শালিকের একটি ছবি ১২তম স্থান লাভ করে। গত বছর ৩৭টি দেশের ৯৫ হাজার ছবির সাথে প্রতিযোগিতা করে আব্দুল মোমিনের তোলা রাতারগুল জলাবনের একটি ড্রোন আলোকচিত্র ৭ম স্থান দখল করেছিল।

উত্তরণবার্তা/এআর

 



পুরনো খবর