প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যতদিন ক্ষমতায় থাকবে বাংলাদেশ ততদিন নিরাপদ থাকবে : পানিসম্পদ উপমন্ত্রী     এবার লাদাখে দল বেঁধে উড়ল যুদ্ধবিমান, মিলিটারি হেলিকপ্টার     হাতিয়ায় পূর্ণিমার জোয়ারের পানিতে থৈ থৈ     তদবির নয়, বদলি হবে নিয়মতান্ত্রিক উপায়ে : আইজিপি     যুক্তরাষ্ট্রের স্বাধীনতা ঘোষণা বার্ষিকীতে ট্রাম্পকে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শুভেচ্ছা     করোনায় সারাদেশে এক কোটি ৬৮ লাখ পরিবার পেয়েছে সরকারি ত্রাণ     করোনায় মৃত্যু ২ হাজার ছুঁই ছুঁই, আক্রান্ত ৩২৮৮     কমেছে যমুনা-বাঙ্গালী নদীর পানি    

দুঃসময়ে মহাকাশ অভিযানে বিরল কৃতিত্ব অর্জন করল মানবসভ্যতা

  জুন ০২, ২০২০     ১০৩     ১১:৩২     শিক্ষা
--

উত্তরণবার্তা তথ্যপ্রযুক্তি ডেস্ক : করোনা মহামারি নিয়ে চারদিকে যখন দুঃসংবাদের ছড়াছড়ি, ঠিক এই সময়ে মহাকাশ অভিযানে বিরল কৃতিত্ব অর্জন করল মানবসভ্যতা।

মহাকাশযাত্রায় এই ইতিহাস গড়েছে ইলন মাস্কের মালিকানাধীন নির্মাতা কোম্পানি স্পেসএক্স। যুক্তরাষ্ট্রের এই বাণিজ্যিক কোম্পানির তৈরি রকেটে চড়ে মহাকাশে অবস্থিত আন্তর্জাতিক স্পেস স্টেশনের যাত্রা করেছেন নাসার দুই মহাকাশচারী। কোনো ব্যক্তিমালিকানাধীন প্রতিষ্ঠানের মহাকাশযানে নভোচারী পাঠানোর ঘটনা এটা্ই প্রথম।

২০১১ সালে নাসার স্পেশ শাটলযান বন্ধ হওয়ার পর থেকে যুক্তরাষ্ট্র এতোদিন আন্তর্জাতিক স্পেস স্টেশনে নভোচারী পাঠাতে রাশিয়ার ওপর নির্ভর ছিল। তবে এবার প্রথমবারের মতো যুক্তরাষ্ট্র নিজ দেশেরই একটি বেসরকারি কোম্পানির তৈরি রকেটে মাধ্যমে নভোচারী পাঠালো। নাসা এবং স্পেসএক্স উভয়ের জন্য এটি একটি ঐতিহাসিক ঘটনা। বিশ্ব ইতিহাসেও ব্যক্তিমালিকাধীন প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে নভোচারী পাঠানোর ঘটনা এটাই প্রথম।

স্পেসএক্সের ফ্যালকন ৯ রকেটে নাসার দুই নভোচারী শনিবার স্থানীয় সময় দুপুর ৩টা ২২ মিনিটে ফ্লোরিডার কেনেডি স্পেস সেন্টার থেকে কক্ষপথের দিকে যাত্রা শুরু করেছেন। মহাকাশ স্টেশনে পৌঁছাতে ১৯ ঘণ্টা লাগবে। ঐতিহাসিক এই যাত্রার দুই নভোচারী হলেন রবার্ট বেনকেন ও ডগলাস হার্লে। মহাকাশ স্টেশনে ৪ মাস থাকবেন তারা। মহাকাশযাত্রার ক্ষেত্র এ ঘটনার মাধ্যমে সরকারি আধিপত্যের শেষ হয়েছে।

উত্তরণবার্তা/এআর



পুরনো খবর