করোনা ও বন্যায় মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ খাতের ক্ষতি পুষিয়ে নিতে কাজের গতি বাড়াতে হবে     পাপিয়া ও তার স্বামীর বিরুদ্ধে দুদকের মামলা     করোনা মোকাবেলায় এডিবি’র প্রতিশ্রুতি ৯.৩ বিলিয়ন ডলারে পৌঁছেছে     জাতীয় শোক দিবস পালনের লক্ষ্যে আইসিটি বিভাগে প্রস্তুতিমূলক সভা অনুষ্ঠিত     শেখ কামালের ৭১তম জন্মবার্ষিকী আগামীকাল     করোনায় আরও ৫০ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ১৯১৮     কৃষকের ক্ষতি পোষাতে বন্যাপ্লাবিত এলাকা পর্যবেক্ষণের নির্দেশ কৃষিমন্ত্রীর     চীনা ভ্যাকসিন: ফল সন্তোষজনক হলে স্বাস্থ্যকর্মীদের ওপর প্রয়োগ    

জলবায়ু পরিবর্তনের নেতিবাচক প্রভাব মোকাবেলায় নিরলসভাবে কাজ করছে সরকার : পরিবেশ মন্ত্রী

  জুলাই ০৫, ২০২০     ৫৫     ১৯:৩৭     জাতীয় সংবাদ
--

উত্তরণবার্তা প্রতিবেদক : পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ক মন্ত্রী মো. শাহাব উদ্দিন এমপি বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন বর্তমান সরকার জলবায়ু পরিবর্তনের নেতিবাচক প্রভাব মোকাবেলায় ও পরিবেশ দূষণ নিয়ন্ত্রণে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে।
জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ক বিভিন্ন আন্তর্জাতিক ফোরামে বাংলাদেশ নেতৃত্ব প্রদান করে আসছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বর্তমানে ক্লাইমেট ভালনারিটি ফোরামের সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।
মন্ত্রী আরো বলেন, এছাড়াও গ্লোবাল সেন্টার অব এডাপটেশনের আঞ্চলিক অফিস ঢাকায় স্থাপনের কাজ পুরোদমে শুরু হয়েছে।
শাহাব উদ্দিন আজ নরওয়ের বিদায়ী রাষ্ট্রদূত সিডসেল ব্লেকেনের সঙ্গে অনলাইনে এক সৌজন্য সাক্ষাৎকালে এ কথা বলেন।
এ সময় মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব আহমদ শামীম আল রাজী মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষ থেকে অনলাইনে সংযুক্ত ছিলেন।
এ সময় তারা বাংলাদেশের ওপর জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব মোকাবেলা, সমুদ্র সম্পদের টেকসই ব্যবহার, সামদ্রিক জঞ্জাল, বিভিন্ন দূষণ নিয়ন্ত্রণ ও বর্জ্য ব্যবস্থাপনা সহ অন্যান্য ক্ষেত্রে নরওয়ের বাংলাদেশকে সহযোগিতার বিষয়ে আলোচনা করেন।
শাহাব উদ্দিন বিদায়ী রাষ্ট্রদূতকে তার সার্বিক সহযোগিতার জন্য ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, মহান স্বাধীনতার পর ১৯৭২ সালের ৪ ফেব্রুয়ারী নরওয়ে বাংলাদেশকে স্বীকৃতি প্রদানের পর থেকেই দু’দেশের মধ্যে পারস্পারিক বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক বিরাজমান রয়েছে।
তিনি বলেন, স্বাধীনতার পর থেকেই নরওয়ে বাংলাদেশকে অব্যাহত সমর্থন জুগিয়ে যাচ্ছে। ভবিষ্যতে দু’দেশের মধ্যে বিদ্যমান এই বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক আরো জোরদার হবে।
আলোচনাকালে উভয়েই বাংলাদেশের সমুদ্র খাত উন্নয়ন, টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রাসমুহ অর্জন, সুনীল অর্থনীতি, চিকিৎসা বর্জ্য ব্যবস্থাপনা, নবায়নযোগ্য জ্বালানী, গ্রিনহাউজ গ্যাস নি:সরণ কমানো সহ বিভিন্ন উন্নয়ন কার্যক্রম এবং জলবায়ু পরিবর্তন সংক্রান্ত বিভিন্ন ক্ষেত্রে একযোগে কাজ করার অঙ্গীকার ব্যক্ত করেন।
তারা সহযোগিতার ক্ষেত্রগুলো চিহ্নিত করে ভবিষ্যতে এক সঙ্গে এগিয়ে যাওয়ার ওপর গুরুত্বারোপ করেন।
জাতিসংঘ সহ অন্যান্য আন্তর্জাতিক ফোরামে দু’দেশের মধ্যে সহযোগিতা আরো গভীর করার বিষয়েও তারা উভয়েই ঐক্যমত পোষন করেন।
এ সময় নরওয়ের রাষ্ট্রদূত তার কর্মকালে সব ধরণের সহায়তার জন্য মন্ত্রী সহ সংশ্লিষ্ট সকলকে ধন্যবাদ জানান।

উত্তরণবার্তা/দীন



পুরনো খবর