বঙ্গবন্ধু হত্যার নেপথ্যের আর্কিটেক্ট ছিলেন জিয়াউর রহমান : আইনমন্ত্রী     বঙ্গবন্ধু হত্যার পেছনে লক্ষ্য ছিল নব্য পাকিস্তান সৃষ্টি : আমু     রাজশাহীতে শোক আর শ্রদ্ধায় বঙ্গবন্ধুকে স্মরণ     করোনা দেশ থেকে বিদায় নেয়ার পথে : স্বাস্থ্যমন্ত্রী     জিয়া আমাকে মন্ত্রী হওয়ার প্রস্তাব দিয়েছিল : রাষ্ট্রপতি     বঙ্গবন্ধু প্রতিষ্ঠিত এফডিসি’র হাত ধরে এদেশের চলচ্চিত্র স্থান নেবে বিশ্বাঙ্গনে : তথ্যমন্ত্রী     ফের ৮০ কিমি বেগে ঝড়ের শঙ্কা, প্লাবিত হবে উপকূলীয় অঞ্চল     বিএনপি সবসময় বঙ্গবন্ধুর হত্যার বিচারে বিরোধিতা করেছে : ওবায়দুল কাদের    

উন্নয়নশীল দেশগুলোর প্রতি দায়িত্বশীল বাণিজ্যিক আচরণের আহ্বান

  জুলাই ১১, ২০২০     ৬০     ১২:৪৯     জাতীয় সংবাদ
--

উত্তরণবার্তা প্রতিবেদক : উন্নয়নশীল দেশগুলোর দারিদ্র্য বিমোচনে রপ্তানি আয় ও রেমিট্যান্স খুবই গুরুত্বপূর্ণ উল্লেখ করে কোভিড-১৯ সঙ্কটকালে দায়িত্বশীল বাণিজ্যিক আচরণের আহ্বান জানিয়েছেন জাতিসংঘে নিযুক্ত বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি রাষ্ট্রদূত রাবাব ফাতিমা।

অভিবাসীদের জীবন-জীবিকা সুরক্ষায় মানবিকতা দেখানোর জন্য উন্নয়ন ও ব্যবসায়িক অংশীদারদের প্রতিও আহ্বান জানান তিনি।

শুক্রবার (১০ জুলাই) রাতে জাতিসংঘ স্থায়ী মিশনের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

জাতিসংঘে চলমান উচ্চ পর্যায়ের রাজনৈতিক ফোরামের (এইএলপিএফ) একটি সাইড ইভেন্টে বক্তব্য দেয়ার সময় এসব কথা বলেন বাংলাদেশের স্থায়ী এ প্রতিনিধি।

'দারিদ্র্যবিমোচনে বৈশ্বিক অগ্রগতি অব্যাহত রাখা ও এগিয়ে নেয়া: কোভিড-১৯ এর সঙ্কট মোকাবিলা' –শীর্ষক এ ভার্চুয়াল সাইড ইভেন্টটির আয়োজন করে কানাডা।

এসময় রাবাব ফাতিমা বলেন, দারিদ্র্য বিমোচন এবং নারীর ক্ষমতায়নে আমাদের যে অর্জন তা আজ তীব্র ঝুঁকির মধ্যে পড়েছে। এটি অর্থনৈতিক ও বাণিজ্য সংরক্ষণবাদের সময় নয়; এটি বৈশ্বিক সংহতিকে বহুগুণে বৃদ্ধি করার সময়।

ইভেন্টে রাষ্ট্রদূত আরও বলেন, দারিদ্র্য বিমোচনের ক্ষেত্রে শেখ হাসিনা সরকার যে সাহসী, জনকেন্দ্রিক এবং অন্তর্ভুক্তিমূলক নীতি গ্রহণ ও বাস্তবায়ন করেছে, সেজন্য বাংলাদেশের লাখ লাখ মানুষ দারিদ্র্য থেকে বেরিয়ে এসেছে। শেখ হাসিনা সরকার গৃহীত দারিদ্র্য বিমোচন কৌশলসমূহ যেমন,  ঝুঁকিপূর্ণ মানুষের জন্য সামাজিক নিরাপত্তা বলয় সম্প্রসারণ, আর্থিক প্রণোদনা, নারী ও যুব শিক্ষা, লিঙ্গসমতা, আইসিটি ও ডিজিটাল পদ্ধতির ব্যবহার সুধিজনদের সামনে তুলে ধরেন তিনি।

ইভেন্টটিতে ‘দারিদ্র্য বিমোচন’, ‘কোভিড-১৯ থেকে পুনরুদ্ধার ও নতুন করে যাত্রা শুরু’, ‘এসডিজি-১: কোনো দারিদ্র্য নয় -এর অব্যাহত অগ্রগতি’ -এসব পরস্পর সম্পর্কযুক্ত বিষয়গুলো নিয়ে কানাডার জাতীয় দারিদ্র্য উপদেষ্টা কাউন্সিল এবং বিভিন্ন দেশের প্রতিনিধিদের মধ্যে আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়।

এতে যোগ দেন কানাডার শিশু, পরিবার ও সামাজিক উন্নয়ন বিষয়ক মন্ত্রী আহমেদ হুসেন। তিনি বৈশ্বিক দারিদ্র্য বিমোচন ও নাজুক উন্নয়নশীল দেশসমূহ যেমন- এলডিসি ও ক্ষুদ্র উন্নয়নশীল দ্বীপরাষ্ট্রগুলোর প্রতিকূলতা মোকাবিলা করে ঘুরে দাঁড়ানোর সামর্থ্য বিনির্মাণে কানাডা সরকারের প্রতিশ্রুতি পুনর্ব্যক্ত করেন।

উত্তরণবার্তা/এআর



পুরনো খবর