বৈরুত বিস্ফোরণে প্রাণহানিতে প্রধানমন্ত্রীর শোক     চাল আমদানির অনুমতি দিলেন প্রধানমন্ত্রী     শেখ কামালের জন্মদিনে শেরপুরে ১০ অসচ্ছল ক্রীড়াবিদকে ডিসির অনুদান     ওসি প্রদীপ ও ইন্সপেক্টর লিয়াকতসহ তিনজন রিমান্ডে     সমুদ্রবন্দরসমূহে তিন নম্বর সতর্ক সংকেত     স্যোশাল মিডিয়ার সার্ভিস প্রোভাইডাররা অপব্যবহারের দায় এড়াতে পারে না : তথ্যমন্ত্রী     ডিএসসিসি এলাকায় অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ অভিযান     স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সাবেক মহাপরিচালক আবুল কালাম আজাদকে দুদকে তলব    

সাহারা খাতুন ছিলেন একজন সংগ্রামী নেতা : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

  জুলাই ১১, ২০২০     ৬৯     ১৫:৫৯     রাজনীতি
--

উত্তরণবার্তা প্রতিবেদক : অ্যাডভোকেট সাহারা খাতুন ছিলেন একজন সফল স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও সংগ্রামী নেতা বলে মন্তব্য করেছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল।

শনিবার (১১ জুলাই) সকাল ১১টায় বনানী কবরস্থানে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এ মন্তব্য করেন।

তিনি বলেন, অ্যাডভোকেট সাহারা খাতুন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী থাকাকালে পুলিশ বাহিনীর জন্য যুগান্তকারী পদক্ষেপ নিয়েছেন। তিনি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী থেকে যাওয়ার পরও বাহিনীর যেকোনো সমস্যায় আসতেন।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলেন, আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যাডভোকেট সাহারা খাতুন ছিলেন একজন সংগ্রামী নেতা। তিনি সবার শ্রদ্ধার পাত্র ছিলেন। তিনি আওয়ামী লীগকে সংগঠিত করতে বিভিন্ন ভূমিকা রেখেছেন। আমরা তাকে হারিয়ে শোকাহত।

সাহারা খাতুন দীর্ঘদিন ধরে অসুস্থ ছিলেন। পরে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য গত ৬ জুলাই এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে করে থাইল্যান্ডে নেওয়া হয়। বৃহস্পতিবার (৯ জুলাই) রাত ১১টা ৪০ মিনিটে থাইল্যান্ডের ব্যাংককের বামরুনগ্রাদ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সাহারা খাতুন শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন। পরে তার মরদেহ দেশে আনা হয়। শনিবার (১১ জুলাই) সকাল ১১টা ১০মিনিটে বনানী কবরস্থানে তার জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। জানাজা শেষে সাহারা খাতুনের জন্য বিশেষ মোনাজাত করা হয়। পরে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে শ্রদ্ধাঞ্জলি দেওয়া হয়।

সাহারা খাতুন ২০০৮ সালে ঢাকা-১৭ আসন থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। এই আসনে তিনি পর পর তিন বার সংসদ সদস্য হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন। ২০০৯ সালে আওয়ামী লীগের নেতৃত্বে সরকার গঠন হলে তিনি দেশের প্রথম নারী স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর দায়িত্ব পান। এরপর ওই মন্ত্রিসভায় তার দপ্তর পরিবর্তন হলে তিনি ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব পান।
 
উত্তরণবার্তা/সাব্বির



পুরনো খবর