মালয়েশিয়া থেকে ফিরলেন আরও ১৪০ বাংলাদেশি     দক্ষ বাংলাদেশিদের জন্য আয়ারল্যান্ডের ভিসা সহজ করার অনুরোধ পররাষ্ট্রমন্ত্রীর     ‘সচেতন না হলে সরকার আবারও কঠোর হবে’     সুস্থ আছেন প্রধান বিচারপতি     যুক্তরাষ্ট্রের পথে যেতে চীনের বিমানগুলোকে বাধা দেবে ট্রাম্প প্রশাসন!     রাঙ্গাবালীতে বজ্রপাতে যুবক নিহত     উপজেলা পর্যায়ে টিসিবি পণ্য বিক্রির ব্যবস্থা গ্রহণে হাইকোর্টের নির্দেশ     ৩ ঘন্টা পর মৃতব্যক্তির শরীরে করোনা ভাইরাসের কার্যকারিতা থাকে না    

ঢাবি’তে ‘৫ম জাতীয় ক্যাম্পাস প্রযুক্তি উৎসব’ উদ্বোধন

  অক্টোবর ২৮, ২০১৮     ২৫২     ১০:৫৫ পূর্বাহ্ন     শিক্ষা
--

উত্তরণবার্তা প্রতিবেদক : ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাবি) আইটি সোসাইটির (ডিইউআইটিএস) আয়োজনে ৫ম বারের মতো ‘ক্যাম্পাস প্রযুক্তি উৎসব’ শুরু হয়েছে।
এ উপলক্ষে আজ রোববার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র-শিক্ষক কেন্দ্রে দু’দিনব্যাপী এই উৎসবের উদ্বোধন করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান। উৎসবে দেশের ৪০টি বিশ্ববিদ্যালয় ও কলেজের প্রযুক্তিপ্রেমী শিক্ষার্থী ও শিক্ষক অংশ নিয়েছেন।
ডিইউআইটিএস-এর সভাপতি সাদেকুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন সংগঠনের মডারেটর অধ্যাপক ড. এ জে এম শফিউল আলম ভূইয়া, উপদেষ্টা ড. মামুনুর রশিদ, রবি আজিয়াটা লিমিটেডের সিইও মাহতাব উদ্দিন আহমেদ, ডেল বাংলাদেশের কান্ট্রি ম্যানেজার আতিকুর রহমান ও এক্সেল টেকনোলজিস এর পরিচালক বিরেন্দ্রনাথ অধিকারী।
অনুষ্ঠানে সম্মানিত অতিথি ছিলেন উচ্চশিক্ষা মানোন্নয়ন প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক ড. গৌরাঙ্গ চন্দ্র মোহন্তা। এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন ডিইউআইটিএস-এর সাবেক ও বর্তমান নেতৃবৃন্দ। উপাচার্য বলেন, শুধু বিশ্ববিদ্যালয় নয় তথ্যপ্রযুক্তিমনস্ক সমাজ বিনির্মাণ করাই ডিজিটাল বাংলাদেশ নির্মাণের মৌলিক দর্শন। এক্ষেত্রে বিশ্ববিদ্যালয় একটি অনন্য প্রতিষ্ঠান। এতে অংশগ্রহণকারী শিক্ষার্থীরা বিশেষ ভূমিকা পালন করছে। প্রযুক্তি সম্প্রসারণে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ আন্তরিক জানিয়ে উপাচার্য বলেন, তথ্যপ্রযুক্তির অপপ্রয়োগের ব্যাপারে সচেতনতা বাড়াতে হবে।
উল্লেখ্য, উৎসবে মোবাইল অ্যাপস তৈরি, কুইজ ও গেমিং প্রতিযোগিতা, প্রজেক্ট প্রদর্শণ ছাড়াও উৎসব সমাপনীতে রয়েছে পুরস্কার বিতরণ ও কনসার্ট। উৎসবের প্রধান সহযোগী রবি আজিয়াটা লিমিটেড। অন্যতম সহযোগী সরকারের বিডিরেন প্রকল্প। এছাড়াও সহযোগিতা করছে ফ্লোরা লিমিটেড, ডেল ও এক্সেল টেকনোলজিস লিমিটেড।

উত্তরণবার্তা/দীন



পুরনো খবর