আর্জেন্টিনায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা লাখ ছাড়ালো     সব বিভাগে ভারী বর্ষণের শঙ্কা     গাইবান্ধায় ব্রহ্মপুত্র, ঘাঘট, করতোয়া ও তিস্তা নদীর পানি ফের বাড়ছে     ঈদুল আজহার জামাতও মসজিদে     ঢাবি ও বিএসএমএমইউ’র যৌথ নেতৃত্বে করোনা চিকিৎসায় নেগেটিভ প্রেসার ক্যানোপি উদ্ভাবন     দেশের প্রথম সুপার স্পেশালাইজড হাসপাতালের নির্মাণ কার্যক্রম পরিদর্শন উপাচার্যের     ডিএনসিসির ৮৬ স্থাপনায় লার্ভা, প্রায় ২ লাখ টাকা জরিমানা     যে কোন সময় সাহেদ গ্রেফতার হতে পারে : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী    

রৌমারীতে প্যারামেডিকেল ভুয়া ট্রেনিং সেন্টারে ভ্রাম্যমান আদালতে ৫লাখ টাকা জরিমানা

  ফেব্রুয়ারি ০৩, ২০১৯     ২৬৬     ৭:৪৭ অপরাহ্ণ     আইন-আদালত
--

উত্তরণবার্তা প্রতিবেদক : কুড়িগ্রামের রৌমারীতে গতকাল প্যারামেডিকেল বাংলাদেশ টেকনোলজি ফাউন্ডেশন (বিটিএফ) রৌমারী শাখার ট্রেনিং সেন্টারে ৫লাখ টাকা জরিমানা ও অনাদায়ে ১মাসের জেল দিয়েছেন ভ্রাম্যমান আদালতে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও প্রথম শ্রেণীর ম্যাজিষ্টেট দ্বীপঙ্কর রায় এ আদেশ দেন। গতকাল ২ ফেব্রুয়ারী শনিবার দুপুরের দিকে মহিলা কলেজ রোড তার ভারাটিয়া ঘরে ট্রেনিং সেন্টারে ডেন্টাল কাউন্সিল ২০১০ এর ২৫ ধারায় ভ্রাম্যমান আদালত দিয়ে প্রতিষ্ঠানের বৈধ কাগজপত্র ও নার্সিং সরঞ্জামাদী না থাকায় রৌমারী শাখার পরিচালক মফিজুল হক রাজুকে আটক করেন এবং ট্রেনিং সেন্টারে থাকা মালামাল জব্দ করা হয়েছে। এছাড়াও ভ্রাম্যমান আদালতে উপস্থিত ছিলেন, সহকারি সার্জন ডা. জুবায়ের আল মাহমুদ শিমুল, রৌমারী থানার এসআই রফিকুল ইসলাম আকন্দ প্রমূখ।
প্রসঙ্গত, গত ১জানুয়ারী ২০১৮ তারিখে বাংলাদেশ টেকনোলজি ফাউন্ডেশন (বিটিএফ) গভঃ রেজিঃ নং ১৪১ উত্তরা কাটিয়া (হাজিবাড়ী), সাতক্ষীরার দোহাই দিয়ে প্যারামেডিকেল ও নার্সিং প্রশিক্ষণ ইন্সটিটিউট মহিলা কলেজ রোডে মফিজুল হক রাজু প্রকল্পটি পরিচালনা করে আসছিলেন।
 প্রশিক্ষণে প্রথম বেচে ৮ বিষয়ের উপর প্রতি বেচে ৩০ জন করে প্রশিক্ষনার্থীর নিকট থেকে ভর্তি ফি ৬ হাজার ১শত টাকা এবং প্রশিক্ষণ ও বিষয় ভিত্তিক সার্টিফিকেট চুক্তি ১০ হাজার থেকে ৫০ হাজার টাকা পর্যন্ত নির্ধারিত করা হয়েছিল। ট্রেনিংয়ে ডিপ্লোমা ইন মেডিকেল এসিসটেন্ট, ডিপ্লোমা ইন মেডিকেল ফ্যাকাল্টি, ডিপ্লোম ইন নার্সিং, ডিপ্লোমা ইন ল্যাবরেটরি টেকনোলজিস্ট, বাংলাদেশ ডেন্টাল এসিসটেন্ট, ডিপ্লোমা ইন হোমিওপ্যাথি প্যারামেডিকেল, পল্লি ডাক্তার ও প্রাণী ডাক্তার।
বিভিন্ন বিষয় গুলি প্রশিক্ষণ দিতে গেলে একটি প্রতিষ্ঠিত ইন্সটিটিউটসহ চিকিৎসার বিভিন্ন উপকরণ ও নিয়োগ কৃত এমবি বিএস ডাক্তার প্রয়োজন। স্থানীয় প্রশাসন ও স্বাস্থ্য বিভাগের কোন অনুমোদন নেই। শুধু হচ্ছে সার্টিফিকেট বিক্রির ব্যবসা।

উত্তরণবার্তা/মাজহারুল/দীন



পুরনো খবর